সাম্প্রতিক শিরোনাম

প্রশাসনের তৎপরতা থাকা সত্ত্বেও প্রকাশ্যে মরা গরুর মাংস বিক্রি, স্বাস্থ্য ঝুঁকির আশঙ্কা 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, রংপুরঃ

hiastock

রংপুর সদর উপজেলার লাহিড়ীরহাটে মরা গরুর পঁচা মাংস বিক্রি ফলে “সেই মাংস খেয়ে একাধিক ক্রেতা অসুস্থ হয়ে পড়েছে”

অভিযোগ উঠেছে, স্থানীয় প্রশাসনের তদারকি না থাকায়, রংপুর সদর উপজেলার চন্দনপাট ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ঈশ্বরপুর মাঠেরহাট গ্রামের গরুর কসাই রফিকুল ইসলাম  রফিক ও তার ছেলে ঝন্টু কসাই লাহিড়ীর হাটে আজ সোমবার মরাগরুর পঁচা মাংশ বিক্রি করে। সোমবার দুপুরে সেই মাংস ক্রয় করে বাড়িতে নিয়ে গিয়ে রান্না করে খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন ৩নং ওয়ার্ডের সিটি ঈশ্বরপুর এলাকার মৃতঃ মহির উদ্দিনের ছেলে রাশেদুল ইসলাম ও তার পরিবারের ৫/৬ জন সদস্য। বর্তমানে রাশেদুলের অবস্থা আশংকাজনক। 

গুগল এডস

শুধু তাই নয় এছাড়াও সদর উপজেলার সদ্যপুস্করনী ইউনিয়নের পালিচড়া বাজারে কিছুদিন আগে মরা ছাগলের মাংস বিক্রির অভিযোগে হাতেনাতে আটক হয় এক কসাই পরে স্থানীয় চেয়ারম্যান সোহেল রানা ও হাট ইজারাদার বিষয়টি অভ্যন্তরীণভাবে মীমাংসা করে।

এদিকে গরুর পচা মাংস বিক্রির এ খবর লাহিড়ীর হাট এলাকায় জানাজানি হয়ে পড়লে কসাই রফিকুল ও তার ছেলে ঝন্টু কসাই গা-ঢাকা দিয়েছেন।  এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য ভুক্তভোগী ক্রেতাগন আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

সর্বশেষ খবর

জনপ্রিয় খবর

hiastock