যুক্তরাষ্ট্র ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহালের যোগ্য নয়: ইইউ

আন্তর্জাতিক পরমাণু চুক্তি থেকে একতরফাভাবে বের হয়ে যাওয়ার কারণে যুক্তরাষ্ট্র এখন আর ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহালের যোগ্য নয়।

২০১৮ সালের মাসে জেসিপিওএ থেকে একতরফাভাবে সরে যায় যুক্তরাষ্ট্র এবং এরপর থেকে জেসিপিওএ’র আর কোনও কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেনি তারা।

যুক্তরাষ্ট্রকে আর জেসিপিওএ অংশ বলে ধরা যায় না।

জয়েন্ট কম্প্রিহেনসিভ প্ল্যান অব অ্যাকশন নামের ওই চুক্তি থেকে নিজেদের প্রত্যাহার করে নেয়ায় যুক্তরাষ্ট্র আর এর অংশ নয়।

যুক্তরাষ্ট্র জেসিপিওএ’র অংশগ্রহণকারীদের জন্য সংরক্ষিত প্রক্রিয়া অবলম্বন করার মতো অবস্থানে নেই।

ট্রাম্প প্রশাসন চায় ইরানের ওপর এ অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়াতে। তবে চলতি সপ্তাহের শুরুতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে এ প্রস্তাব পাস করতে ব্যর্থ হয়েছে তারা।

২০১৫ সালে বিশ্বের শক্তিধর দেশগুলোর সঙ্গে ইরানের পরমাণু কর্মসূচি বিষয়ে একটি চুক্তি হয়েছিল। এ চুক্তির আওতায় ইরানকে পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি থেকে বিরত থাকা এবং আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষণে পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প এগিয়ে নেয়ার অনুমতি দেয়া হয়।

ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিষয়ে সম্মতি জানিয়েছিল জাতিসংঘও।

চুক্তি অনুসারে একটি অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী অক্টোবরে।

জাতিসংঘে প্রস্তাব প্রত্যাখ্যাত হওয়ার পরও শনিবার সংবাদ সম্মেলনে ইরানের পরমাণু ইস্যুতে ব্যবস্থা নেয়ার অঙ্গীকার করেছেন ট্রাম্প। কী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে তা আগামী সপ্তাহেই দেখা যাবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

সর্বশেষ

সামরিক সম্পর্ক জোরদারে তুরস্ক সফরে বাংলাদেশ সশস্ত্রবাহিনীর প্রতিনিধিদল

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ শামীম কামাল এর নেতৃত্বে Armed force war course 2022 এর ২৬ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল Overseas study tour (OST) এ তুরস্ক...

নিরাপত্তা পরিষদে মায়ানমার ইস্যুতে বাংলাদেশকে সমর্থন দেবে যুক্তরাজ্য

রাখাইন রাজ্যে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সঙ্গে আরাকান আর্মির লড়াইয়ের জেরে দুই দেশের সীমান্তের উদ্ভূত পরিস্থিতি নিরসনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহযোগিতা চেয়েছে বাংলাদেশ। এরই ধারাবাহিকতায় যুক্তরাজ্য বলেছে,...

কাউকে কাউন্ট করি না, আমরা সবসময় প্রস্তুত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশের ভূখণ্ডে বারবার মর্টারের গোলা পড়ার ঘটনার প্রেক্ষাপটে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন...

মেয়েদের জন্য দাঁড়িয়ে পথে পথে চেনা মুখগুলি

মঙ্গলবারেই জানানো হয় বিমানবন্দর থেকে বনানী- মহাখালী- বিজয় সরণী হয়ে সাত রাস্তা-মগবাজার হয়ে বাফুফে যাবে মেয়েরা। সেই অনুযায়ী যার যার মতো করে দাঁড়িয়েছিলেন সবাই।...