সাম্প্রতিক শিরোনাম

বদলে দেয়া হচ্ছে ‘শ্রুতিকটু’ সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নাম

গত ৬ আগস্ট প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (পলিসি ও অপারেশন) খালিদ আহমেদের সই করা নির্দেশনাপত্রে বলা হয়েছে, সারাদেশে এমন কিছু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নাম আছে যা শ্রুতিমধুর নয় এবং ভাষা ও সংস্কৃতির সঙ্গে সুশোভন নয়। এসব নিয়ে বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে হাস্যরসের সৃষ্টি হচ্ছে।

hiastock

যেসকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নাম বিব্রতকর কিংবা শ্রুতিমধুর নয়, সেগুলোর নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। দেশের ভাষা ও সংস্কৃতির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে এ ধরনের স্কুলের শোভনীয় নাম প্রস্তাব করে আগামী ৩০ আগস্টের মধ্যে পাঠাতে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। নরসিংংদীর বেলাবো উপজেলার ‘কুকুরমারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

অন্যদিকে  রাঙামাটির ‘চুমাচুমি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়’ নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে নানা ব্যঙ্গবিদ্রুপ চলছে। এর বাইরে কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার ‘দুধ খাওয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের’ নাম নিয়েও ওই বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা বিব্রত পরিস্থিতির শিকার হচ্ছেন বলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে অভিযোগ এসেছে।

গুগল এডস

এছাড়াও নীলফামারী সদর উপজেলার ‘মানুষমারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের’ নাম পরিবর্তন করে ‘মানুষগড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়’ করা হয়েছিল। গত সপ্তাহে নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার ‘চোরেরভিটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের’ নাম পরিবর্তন করে ‘আলোর ভুবন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়’ করা হয়।

সর্বশেষ খবর

জনপ্রিয় খবর

hiastock