সাম্প্রতিক শিরোনাম

হাজার টাকার ১০০ জাল নোটের দাম ১২-১৫ হাজার টাকা

আবদুর রহিম শেখ ও ফাতেমা বেগম স্বামী স্ত্রী। তারা গড়ে তুলেছেন জাল টাকার কারখানা। সেই কারখানায় ল্যাপটপ, কালার প্রিন্টার, আঠা ও আইকা, বিভিন্ন ধরনের রং, জাল টাকা তৈরির জন্য বিপুল পরিমাণ কাগজ, নিরাপত্তা সুতার বান্ডেল, লেমিনেটিং মেশিন, কাটার, বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতি ও বাংলাদেশ ব্যাংকের লগো সম্পন্ন বিশেষ কাগজ জমা করেছিলেন। যা দিয়ে তারা কোরবানির ঈদের আগে কোটি জাল টাকা তৈরির উদ্যোগ নিয়েছিলেন। কিন্তু কোটি টাকা বানানোর আগেই ধরা পড়ে গেছেন।

দু’জনসহ পাঁচজনকে আজ সোমবার দুপুরে ডিসি ডিবি মশিউর রহমানের নেতৃত্বে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা গুলশান বিভাগের একাধিক টিম গুলশানের বাড্ডা থানাধীন নুরের চালা সাঈদ নগরের একটি সাততলা বাড়ির ষষ্ঠ তলায় অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারকৃত অন্যরা হলেন গার্মেন্ট ব্যবসায়ী হেলাল খান, আনোয়ার হোসেন ও ইসরাফিল আমিন। কারখানাটি থেকে ১০০০ টাকা ও ৫০০ টাকা মূল্যমানের প্রায় ৪৩ লাখ তৈরিকৃত জাল টাকা ও প্রচুর পরিমাণে জাল টাকা তৈরির উপকরণ জব্দ করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত ফাতেমা বেগম ২০১৯ সালে হাতিরঝিল এলাকার একটি বাসায় জাল টাকার তৈরি করার সময় অপর সহযোগীসহ হাতে নাতে ধরা পড়লেও তার স্বামী রহিম পালিয়ে গিয়েছিলেন। গ্রেপ্তারকৃত অন্যরাও জাল টাকা, মাদক কারবারের সঙ্গে জড়িত।

গ্রেতারকৃতরা দীর্ঘদিন ধরে জাল টাকা খুচরা এবং পাইকারি বিক্রি করার পাশাপাশি গত তিন বছর ধরে ঈদসহ অন্যান্য উৎসবের আগে আগে জাল টাকা তৈরির কাজে নিয়োজিত থেকে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশি জাল টাকা বাজারে ছেড়েছে বলে প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছেন। তাদের স্বামী স্ত্রীকে অর্থ দিয়ে পৃষ্ঠপোষকতা করছে বাল্যবন্ধু হেলাল খান।

হেলাল খান এক সময় গার্মেন্টের ব্যবসা করলেও ইয়াবার নেশা এবং ইয়াবার ব্যবসা করতে গিয়ে বিভিন্নভাবে লোকসানের শিকার হয়ে গার্মেন্ট ব্যবসা ছেড়ে দেন। পরে তিনি কক্সবাজার-টেকনাফ থেকে ইয়াবা ব্যবসার পাশাপাশি রহিম এবং ফাতিমাকে দিয়ে জাল টাকা তৈরির ব্যবসাও করাচ্ছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা জানায়, জাল ১০০টি কাগজের নোটের এক বান্ডেল জাল টাকা তৈরি করতে ৭/৮ হাজার টাকা খরচ হয়। সেই টাকা প্রতি বান্ডেল পাইকারি ১২ থেকে ১৫ হাজার টাকায় চক্রের সদস্যদের কাছে বিক্রি করে। পাইকাররা আবার এগুলোকে প্রান্তিক পর্যায়ের বিভিন্ন খুচরা বিক্রেতাদের কাছে প্রতি বান্ডেল ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেয়। যা রুট পর্যায়ের জাল টাকার কারবারিরা কখনো কখনো গহনা, কখনো কাপড়চোপড়, ভোগ্য পণ্য এমনকি পশুর হাটে বিক্রি করে ছড়িয়ে দিয়ে থাকে। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা করার প্রক্রিয়া চলছে।

সর্বশেষ

কালীগঞ্জে চেয়ারম্যান প্রার্থী বিএনপি নেতার হাতে নৌকার সিল মারা ব্যালট

লালমনিরহাট প্রতিনিধি : জেলায় সদ্য অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকায় ২০ টি সিল মারা ব্যালট পেপার নিয়ে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে চেয়ারম্যান প্রার্থী বিএনপি নেতা সংবাদ...

কালীগঞ্জে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী পেলেন সমান ভোট

লালমনিরহাট প্রতিনিধি : জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদের ফল স্থগিত করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মাহাবুবুর রহমান ও স্বতন্ত্র...

স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশে বাংলাদেশের উত্তরণ জাতিসংঘে অনুমোদিত

সাধারণ পরিষদের ৭৬তম বৈঠকের ৪০তম প্লেনারি সেশনে বুধবার স্বল্পোন্নত দেশ (এলডিসি) থেকে বাংলাদেশের উত্তরণের সুপারিশ অনুমোদিত হয়েছে।অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এই ঐতিহাসিক...

লালমনিরহাটের আদিতমারীতে ৮ ইউপি’র ৬ টিতে নৌকা জয়ী

লালমনিরহাট প্রতিনিধি : দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় ৮টি ইউনিয়ন পরিষদের ৬ ইউপিতে নৌকা, একটিতে আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী প্রার্থী এবং একটিতে সতন্ত্র...