সাম্প্রতিক শিরোনাম

বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটিতে ৪০টি শূন্য পদ রয়েছে

মৃত্যুজনিত কারণ ছাড়াও কিছু নেতার পদত্যাগ, বহিষ্কারসহ পদোন্নতির কারণে এসব পদ এখন ফাঁকা।

hiastock

মৃত্যুবরণ করেছেন ৩০ জন, পদত্যাগ করেছেন নয়জন এবং বহিষ্কার হয়েছেন একজন। এ ছাড়া পদোন্নতি পেয়েছেন পাঁচ নেতা।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির মোট সদস্য সংখ্যা ১৯ জন। মারা যাওয়া ও পদত্যাগের পর এখন স্থায়ী কমিটিতে রয়েছেন ১৫ জন। এখানে চারটি পদ শূন্য রয়েছে। এর মধ্যে তিনজন মারা গেছেন।

তরিকুল ইসলাম, আ স ম হান্নান শাহ ও এম কে আনোয়ার। এ ছাড়া রাজনীতি থেকে অবসর নিয়েছেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান। ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিএনপিতে পাঁচটি পদ ফাঁকা রয়েছে। এরমধ্যে তিনজন মারা গেছেন, একজনকে বহিষ্কার করা হয়েছে এবং একজন পদত্যাগ করেছেন। মারা যাওয়া তিনজন হলেন, সাদেক হোসেন খোকা, আবদুল মান্নান ও ব্যারিস্টার আমিনুল হক।

দলের এসব শূন্য পদ কবে পূরণ হবে তা নিশ্চিত নয়। এরই মধ্যে এক বছরের বেশি সময় ধরে মেয়াদোত্তীর্ণ বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটি। করোনা পরিস্থিতির আগে কাউন্সিলের কথা উঠলেও পরবর্তীতে সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে বিএনপি।

রবিবার থেকে বিএনপির স্থগিত থাকা সাংগঠনিক কার্যক্রম আবারো শুরু হচ্ছে। বিএনপির জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে নতুন করে পুনর্গঠন প্রক্রিয়া শুরু হবে। যদিও বিএনপির অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের কমিটি পুনর্গঠন চলছে।

ভাইস চেয়ারম্যান এম মোর্শেদ খান ও মোসাদ্দেক আলী ফালু দল থেকে পদত্যাগ করেছেন। বিএনপির এই দুই নেতাই দেশের বাইরে অবস্থান করছেন।

ইনাম আহমেদ চৌধুরী আওয়ামী লীগে যোগদান করায় তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি আওয়ামী লীগের কার্য নির্বাহী কমিটির উপদেষ্টা পদে রয়েছেন।

বেশ কয়েকটি উপদেষ্টা পদ শূন্য রয়েছে। মারা গেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ফজলুর রহমান পটোল, হারুন-অর রশীদ খান মুন্নু, আখতার হামিদ সিদ্দিকী, জাফরুল হাসান, নূরুল হুদা, কবির মুরাদ, সঞ্জীব চৌধুরী, ওয়াহিদুল ইসলাম ও এম এ হক। এ ছাড়া নির্বাহী কমিটির আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া, গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক আবু সাইদ খোকন, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক বদরুজ্জামান খসরু, ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ মোজাফফর হোসেন, কুমিল্লা বিভাগীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল আউয়াল খান মারা গেছেন।

নির্বাহী কমিটির সদস্যদের মধ্যে মারা গেছেন স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, আহসান উল্লাহ হাসান, আবুল কাশেম চৌধুরী, এ এফ এম ইকবাল, মোজাহার হোসেন, মোজাহার আলী প্রধান, কামরুদ্দিন ইয়াহিয়া খান মজলিশ, সরোয়ার আজম খান, কাজী আনোয়ার হোসেন, শফিকুর রহমান ভূঁইয়া, চমন আরা, এম এম মতিন, এম এ মজিদ, মিয়া মোহাম্মদ সেলিম, কাজী সেকান্দার আলী ডালিম প্রমুখ।

পদত্যাগ করা অন্য নেতারা হলেন, কোষাধ্যক্ষ মিজানুর রহমান সিনহা, সহ সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মনির খান, সহ অর্থনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক শাহাবুদ্দিন আহমেদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য আলী আসগর লবী ও ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল।

পদোন্নতি হওয়া চার নেতার মধ্যে ভাইস চেয়ারম্যান থেকে স্থায়ী কমিটিতে গেছেন সেলিমা রহমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। নির্বাহী কমিটির সদস্য থেকে রংপুর বিভাগীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক হয়েছেন সাবেক ছাত্র ও যুবনেতা আবদুল খালেক।

পদোন্নতি পেয়ে সহ ব্যাংকিক বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে খন্দকার মোক্তাদির হোসেন ও সহ তথ্য ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে রিয়াজউদ্দিন আহমেদ নসুকে।

সর্বশেষ খবর

জনপ্রিয় খবর

hiastock