যেকোনো মুহূর্তে সরকারের পতন ঘটবে: রিজভী

যেকোনো মুহূর্তে সরকারের পতন ঘটবে দাবি করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, সরকারের রাষ্ট্রযন্ত্র থেকে যে দুর্গন্ধ বের হচ্ছে তা দেশে বিদেশে ছড়িয়ে পড়েছে।

এই সরকারের ক্ষমতায় থাকার আর কোনো ভিত্তি নেই। যেকোনো মুহূর্তে এই সরকারের পতন ঘটবে।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে নড়াইলের আদালতে দুই বছরের কারাদণ্ড দেওয়ার প্রতিবাদে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি এ বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে রিজভী বলেন, এই সরকারের আর কোথাও নিজেদের নয় মুখ দেখাবার জো নেই। তাই পূর্বের মতো রাষ্ট্রের ভয়াবহ ঘটনা ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে দেশের জনপ্রিয় জননেতা তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়েছেন। এটি সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

রিজভী আরো বলেন, সরকার জিয়া পরিবারকে টার্গেট করে আবারো মিথ্যা মামলা দিয়ে এবং নানা ধরনের কুৎসা রটনা করে নিজেরা মনে করছে পার পেয়ে যাবে।

কিন্তু জনগণের কাছে ইতোমধ্যেই এই আওয়ামী সরকার গণধিকৃত হয়ে গেছে।

অবিলম্বে তারেক রহমানের মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে সাজা প্রত্যাহার করতে হবে।

এ সময় মহানগর উত্তর বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি মুনসী বজলুল বাসিত আনজু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলীম নকিসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ

সামরিক সম্পর্ক জোরদারে তুরস্ক সফরে বাংলাদেশ সশস্ত্রবাহিনীর প্রতিনিধিদল

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ শামীম কামাল এর নেতৃত্বে Armed force war course 2022 এর ২৬ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল Overseas study tour (OST) এ তুরস্ক...

নিরাপত্তা পরিষদে মায়ানমার ইস্যুতে বাংলাদেশকে সমর্থন দেবে যুক্তরাজ্য

রাখাইন রাজ্যে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সঙ্গে আরাকান আর্মির লড়াইয়ের জেরে দুই দেশের সীমান্তের উদ্ভূত পরিস্থিতি নিরসনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহযোগিতা চেয়েছে বাংলাদেশ। এরই ধারাবাহিকতায় যুক্তরাজ্য বলেছে,...

কাউকে কাউন্ট করি না, আমরা সবসময় প্রস্তুত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশের ভূখণ্ডে বারবার মর্টারের গোলা পড়ার ঘটনার প্রেক্ষাপটে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন...

মেয়েদের জন্য দাঁড়িয়ে পথে পথে চেনা মুখগুলি

মঙ্গলবারেই জানানো হয় বিমানবন্দর থেকে বনানী- মহাখালী- বিজয় সরণী হয়ে সাত রাস্তা-মগবাজার হয়ে বাফুফে যাবে মেয়েরা। সেই অনুযায়ী যার যার মতো করে দাঁড়িয়েছিলেন সবাই।...