সাম্প্রতিক শিরোনাম

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসন আয়োজিত ১৩ হাজার শিক্ষকের অংশগ্রহণে উপস্থিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতা

জেলা প্রশাসন আয়োজিত উপস্থিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতায় উপজেলা পর্যায়ে ১২ হাজার ৯৩৫ জন শিক্ষকের স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশ নিয়েছেন।

hiastock

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও ৪৫তম শাহাদত বার্ষিকীতে বঙ্গবন্ধু, বাংলার স্বাধীনতা, বাংলাদেশের প্রকৃত ইতিহাস ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ সবার মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষ্যে ব্যতিক্রমী ওই উদ্যোগ নেওয়া হয়।

জেলা প্রশাসন এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ে উপজেলা প্রশাসন, জেলা শিক্ষা অফিস ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের সহযোগিতায় এবং নারায়ণগঞ্জে কর্মরত কর্মকর্তাদের সমন্বিত প্রয়াসে জুম অ্যাপসের মাধ্যমে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

গুগল এডস

২৭ আগস্ট মাধ্যমিক পর্যায়ের চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথি ছিলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহমুদ হোসেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক।

সিটি কর্পোরেশন ও কলেজ পর্যায়ের বিজয়ী মোট ২৪ জন প্রতিযোগীর মধ্যে থেকে জেলা পর্যায়ে চূড়ান্তভাবে প্রথম হয়েছেন নারায়ণগঞ্জ আইডিয়াল স্কুল ফ্লোরা হায়দার।

নারায়ণগঞ্জ কলেজের মো. গোলাম রাব্বী দ্বিতীয় ও রূপগঞ্জের কাজী আ. হামিদ উচ্চ বিদ্যালয়ের আকন্দ মোহাম্মদ কামরুল হাসান তৃতীয় হয়েছেন।

৩১ আগস্ট প্রাথমিক পর্যায়ে চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথি ছিলেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. ফসিউল্লাহ, মহাপরিচালক।

উপজেলা পর্যায় থেকে শ্রেষ্ঠ হিসেবে নির্বাচিত ১৫ জন শিক্ষকদের মধ্যে জেলা পর্যায়ে চূড়ান্তভাবে বিজয়ী তিন শিক্ষক হলেন সানারপাড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সুরাইয়া সুলতানা মিলি (প্রথম), বন্দরের মালিবাগ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় মেহেজাবিন আক্তার ও সোনারগাঁর ভট্টপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাহমুদা আক্তার।

অনুষ্ঠানেই সভাপতিত্ব করেন নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন।

তিনি ৩১ আগস্ট উভয় পর্যায়ের বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার ও সার্টিফিকেট বিতরণ করেন। নারায়ণগঞ্জ জেলার গণ্যমান্য ব্যক্তি ও শিক্ষাবিদরা উভয় অনুষ্ঠানে জুমের মাধ্যমে উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ খবর

জনপ্রিয় খবর

hiastock