চলমান যুদ্ধে প্রতিপক্ষের হামলায় আর্মেনিয়ার আরো ৩০ জন সেনা সদস্য নিহত

নাগার্নো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে চলমান যুদ্ধে প্রতিপক্ষের হামলায় আর্মেনিয়ার আরো ৩০ জন সেনা সদস্য নিহত হয়েছে বলে বৃহস্পতিবার জানিয়েছে কারবাখ অঞ্চলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

২৭ সেপ্টেম্বর আজারবাইজানের সঙ্গে যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে এখনো পর্যন্ত ৩৫০ জন আর্মেনীয় সেনা নিহত হয়েছে।

১৯৯০-এর দশক সংগঠিত যুদ্ধে উভয় পক্ষের প্রায় ৩০ হাজার মানুষ নিহতের পর এবারের লড়াইটি সবচেয়ে খারাপ পর্যায়ে চলে গেছে। বিরোধপূর্ণ অঞ্চলটিতে টানা ১২ দিনের মত সংঘর্ষ চলমান রয়েছে। সংঘর্ষে উভয় দেশেরই ক্ষয়-ক্ষতি হলেও আজারবাইজান বেশ সুবিধাজনক অবস্থায় রয়েছে।

দক্ষিণ ককেশাসে বিস্তৃত যুদ্ধ এড়াতে আমেরিকা, ফ্রান্স এবং রাশিয়া জেনেভায় মিলিত হওয়ার আগে বৃহস্পতিবার আজারবাইজান এবং জাতিগত আর্মেনিয়ান বাহিনী নাগর্নো-কারাবাখ অঞ্চলে এবং তার আশেপাশে নতুন সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।

আজারবাইজান জানিয়েছে যে, বৃহস্পতিবার ভোরে আর্মেনীয় বাহিনী গ্যাঞ্জা শহরকে গোলা বর্ষণ করেছে, এতে এক বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে। এছাড়া অন্যান্য গ্রামগুলোতেও জাতিগত আর্মেনীয় বাহিনী গুলি চালিয়েছে।

আজেরি কর্তৃপক্ষ ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া যুদ্ধে এখনো পর্যন্ত ৩০ জন বেসামরিক নাগরিকের মৃত্যুর খবর দিয়েছে।

এছাড়া আরো ১৪৩ জন বেসামরিক লোক আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে। তবে সেনা হতাহতের বিষয়ে আজারবাইজান কোন তথ্য প্রকাশ করেনি।

সর্বশেষ

সামরিক সম্পর্ক জোরদারে তুরস্ক সফরে বাংলাদেশ সশস্ত্রবাহিনীর প্রতিনিধিদল

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ শামীম কামাল এর নেতৃত্বে Armed force war course 2022 এর ২৬ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল Overseas study tour (OST) এ তুরস্ক...

নিরাপত্তা পরিষদে মায়ানমার ইস্যুতে বাংলাদেশকে সমর্থন দেবে যুক্তরাজ্য

রাখাইন রাজ্যে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সঙ্গে আরাকান আর্মির লড়াইয়ের জেরে দুই দেশের সীমান্তের উদ্ভূত পরিস্থিতি নিরসনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহযোগিতা চেয়েছে বাংলাদেশ। এরই ধারাবাহিকতায় যুক্তরাজ্য বলেছে,...

কাউকে কাউন্ট করি না, আমরা সবসময় প্রস্তুত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশের ভূখণ্ডে বারবার মর্টারের গোলা পড়ার ঘটনার প্রেক্ষাপটে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন...

মেয়েদের জন্য দাঁড়িয়ে পথে পথে চেনা মুখগুলি

মঙ্গলবারেই জানানো হয় বিমানবন্দর থেকে বনানী- মহাখালী- বিজয় সরণী হয়ে সাত রাস্তা-মগবাজার হয়ে বাফুফে যাবে মেয়েরা। সেই অনুযায়ী যার যার মতো করে দাঁড়িয়েছিলেন সবাই।...